দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শ্বশুর বাড়িতে নতুন বর খুন

47411বিয়ের তিন দিনের মধ্যে শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে নির্মমভাবে খুন হলেন এক বর।
মালয়েশিয়া প্রবাসী ঐ বরের নাম সুহেল আহমদ উরফে ছৈল মিয়া (৩০)। তিনি দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের হাসনাবাজ গ্রামের আব্দুল মানিকের পুত্র।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, চলতি মাসের ১৪ অক্টোবর শুক্রবার দিরাই বাগানবাড়ি কমিউনিটি সেন্টারে উপজেলার গাজীনগর গ্রামের সমসুল আলমের মেয়ে জহুরা বেগমের (২০) সাথে মালয়েশিয়া প্রবাসী সুহেল আহমদ উরফে ছৈল মিয়ার বিবাহ সম্পন্ন হয়। বিয়ের তৃতীয় দিন গত রোরবার বর শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রী ও আত্মীয় স্বজনকে সাথে নিয়ে বেড়াতে যান।
গত রোববার সন্ধ্যার পর নিজ বাড়িতে ফেরার আগ মুহূর্তে জহুরার ফুফাত ভাই, পাথারিয়া গ্রামের আসকর আলীর ছেলে শাহীন মিয়া (২৮) হঠাৎ করে ঘরে ঢুকে বৈদ্যুতিক লাইনের মেইন সুইচ বন্ধ করে সুহেল মিয়াকে বটি দা দিয়ে মাথায় এলোপাথাড়ি কুপিয়ে ঘরের পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই সুহেল মিয়া মাটিতে লুটিয়ে পড়লে সঙ্গে থাকা আত্মীয় স্বজন তাকে প্রথমে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হলে বর ছৈল মিয়াকে সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার রাত সাড়ে ১০টায় তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।
মর্মান্তিক এই মৃত্যুর সংবাদ স্বজনদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে স্ত্রীসহ পরিবারের লোকজন কান্নায় ভেঙে পড়েন।
গতকাল সোমবার বিকেলে ময়না তদন্ত শেষে তাকে হাসনাবাজ গ্রামের পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে। রাত ১০টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মূল খুনিকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে, হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে হামলাকারী শাহীনের ভাই শাহনুর আলম (৩২) কে আটক করেছে পুলিশ।
এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আল আমীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

Developed by: