বিভাগ: খেলাধুলা

আফগানিস্তান যুব দলকে উড়িয়ে দিলো বাংলাদেশ

nm3আফগানিস্তান অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলকে ১৪৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল।প্রায় দেড় বছরের বেশী সময়ের পর আন্তর্জাতিক ম্যাচে প্রত্যাবর্তন করে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম।ভেন্যুটির প্রত্যাবর্তন বলতে হবে শুভ হয়েছে।
সিরিজের প্রথম ম্যাচে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাট করতে আমন্ত্রণ জানায় আফগানিস্তানের কাপ্তান নাবিদ উল হক। টস হেরে ব্যাট করা বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ৯ উইকেটের বিনিময়ে ২২২ রান করে। এর জবাবে মাত্র ৭৭ রানে অলআউট হয়ে যায় সফরকারীরা।
বাংলাদেশের হয়ে ইনিংসের সূচনা করেন টাইগার অধিনায়ক সাইফ হাসান ও পিনাক ঘোষ। তাদের দুজনের হাত ধরে বাংলাদেশ পায় উড়ন্ত সূচনা। ৭ অভারে দলীয় সংগ্রহ ৩৫রানের মাত্রায় ১৬ বলে ২০ রানের ইনিংস খেলে ইউসুফের বলে নাবিদের হাতে ক্যাচ হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক সাইফ হাসান। দলীয় ৬৯ রানে পিনাক (২৩) ও আফিফকে (১৯) হারালে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। রাকিব ব্যাক্তিগত ৫ রান করে মুজিবের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরলে ব্যাটিং বিপর্যয়ের শংকায় পড়ে দল। তবে তৌহিদ রূদয় ও মাহিদুলের ব্যাটে আশার আলো দেখে বাংলাদেশ।এই দুজন দলকে ১৫৯ রান পর্যন্ত নিয়ে যান।নাবিদের বলে উইকেট রক্ষক হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে ম্যাচের একমাত্র ফিফটি আসে তৌহিদ রূদয় ব্যাট থেকে। ৮৫ বলে ৫২ রানের ইনিংসে চার ছিলো চারটি। মাহিদুল ৩৫ রানে আউট হলে ৭ উইকেটে ১৬৫ রানে পরিণত হয় বাংলাদেশ।তখন ২০০ পার করতে পারবে কি না আশঙ্কা জাগে।তবে শেষের দিকে অনিকের ২৭ এবং রবিউলের ১৮ রানের কল্যানে ৫০ অভার শেষে ২২২ রান সংগ্রহ করে।
আফগানিস্তান যুবাদের হয়ে মুজিবুর ইসলাম ১০ ওভারে ১ মেডেনে ২২ রানে ৪টি উইকেট শিকার করেন। দুটি উইকেট নেন তারেক স্ট্রানিকজাই।
২২৩ রানের জবাবে খেলতে নেমে শুরু থেকে আফগানিস্তানের ব্যাটসম্যানেরা তেমন সুবিধা করে খেলতে পারেনি বাংলাদেশের বোলারদেরকে। শুরু থেকে ধারাবাহিক ভাবে উইকেট হারাতে থাকে আফগানিস্তান।কাজী অনিক ও নাঈমের হাসানের বোলিংয়ে অসহায় ভাবে আত্মসমর্পন করে আফগান এক একজন ব্যাটসম্যান। নাবিদ ও তারেকের উদ্বোধনী জুটি দলীয় ১৬ রান পর্যন্ত স্থায়ী হয়।কাজী অনিকের বলে রাকিবের বলে তালুবন্দি হওয়ার আগে ১৮ বলে ৬ রান করেন নাবিদ।এরপর দলীয় ৩৪ রানে প্যাভিলিয়নে একে একে ফিরে যান পারভেজ ,আব্দুল রসূল ও তারেক।শেষের দিকের ব্যাটম্যানেরা বলার মতো রান করতে না পারলে মাত্র ৭৭ রানে অলআউট হয়ে যায় আফগানিস্তান।
বাংলাদেশ দলের পক্ষে কাজী অনিক ৪টি, নাইম হাসান ৩টি এবং রবিউল ও মনিরুল ১টি করে উইকেট লাভ করেন।

রোনালদোর লাল কার্ড, নিষিদ্ধ হতে পারেন ১২ ম্যাচ

মাদ্রিদ, ১৪ আগস্ট- স্প্যানিশ লিগ শুরুর আগেই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার ম্যাচটি দারুণ উপভোগ করেছে ফুলবল প্রেমীরা। তবে শেষ হাসিটা অবশ্য রিয়াল সমর্থকদের। যদিও জয় ছাপিয়ে এখন আলোচনায় রিয়ালের সেরা তারকা রোনালদোর লাল কার্ড। প্রথমার্ধে মাঠে ছিলেন না। ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে যখন মাঠে নামেন তখন পিকের আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে সফরকারীরা। তাই তো দর্শকদের দুয়ো ধ্বনির মধ্য দিয়ে মাঠে নামেন সিআর সেভেন। তবে জবাব দিতে বেশি সময় নেননি পর্তুগাল অধিনায়ক।

ম্যাচের ৮০তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে জোরালো শটে ন্যূ ক্যাম্পকে স্তব্ধ করে দেন রোনালদো। এখানেই থেমে থাকেননি, গোলের পর জামা খুলে গর্জন করে পেশী প্রদর্শন করে হলুদ কার্ডও দেখেন তিনি। এরপর সেই অপ্রীতিকর ঘটনা। অবশ্য যে কারণে তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেওয়া হয়েছে সেটা নিয়েও বিতর্ক কম নয়।

গোল করার পরের মিনিটেই ডি-বক্সে পায়ে বল রাখতে না পেরে পড়ে গিয়েছিলেন রোনালদো। তখন ডি-বক্সে ডাইভের অভিযোগে তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখানো হয়। হলুদে হলুদে মিলে যেটা হয়ে যায় লাল কার্ড।

বিতর্কিত ওই সিদ্ধান্তে মেনে নিতে পারেননি পর্তুগিজ তারকা। বেরিয়ে যাওয়ার আগে আস্তে করে ধাক্কা মেরে বসেন রেফারিকে। অবশেষে বার্সেলোনাকে ৩-১ গোলে হারিয়ে আরেকটি শিরোপা জয়ের পথে এগিয়ে যায় রিয়াল। তবে রেফারি ম্যাচের প্রতিবেদনে ধাক্কা মারার বিষয় উল্লেখ করার এখন আলোচনা রোনালদোর সেই ধাক্কা। যার সর্বোচ্চ শাস্তি ১২ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা। স্প্যানিশ ফেডারেশনের শৃঙ্খলতাজনিত বইয়ের ৯৬ নম্বর আর্টিকেলে আছে, রেফারিকে মৃদু আঘাত করলে ৪-১২ ম্যাচ পর্যন্ত নিষিদ্ধ করা যেতে পারে।780d254673c5c2903058a2528f11e80f

২য় জাজ কাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট ২০১৭ ইশতিয়াক জামিল ও শামিম চ্যাম্পিয়ান

1

গত ২৬শে ফেব্রুয়ারী রাগবী শহরের রাগবী স্কুল স্পোর্টস হলে অনুষ্টিত হলো ২য় জাজ কাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট ২০১৭। টুনার্মেন্ট এর আয়োজক শিক্ষানুরাগী, ক্রিড়াবিদ ও সংগঠক আসিক মিয়ার পরিচলনায় দিনব্যাপি অনুষ্টিত খেলায় ১৬টি জুটিতে ৩২জন প্রতিযোগি অংশ গ্রহন করেন। উক্ত খেলায় ১ম স্থান অধিকার করেন ইশতিয়াক জামিল (রাগবী) ও শামিম (লন্ডন), ২য় স্থান অধিকার করেন আনোয়ার (লিডস) ও জাহাঙ্গীর (লিডস) এবং ৩য় স্থান অধিকার করেন মাছুম (লিডস) ও সামির (ব্ল্যাকবার্ণ) । পুরস্কার বিতরণী পর্বে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন টুনার্মেন্ট এর আয়োজক আসিক মিয়া এবং অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশী ব্যাডমিন্টন ফেডারেশন ইউকে (বিবিএফইউকে) এর ভাইস চেয়ারম্যান আলী আসগর এবং সাধারণ সম্পাদক হারুন রেজা ও সদস্য শামিম, অনুভতি ব্যক্ত করেন ১ম স্থান অধিকারি ইশতিয়াক জামিল । খেলায় ১ম পুরস্কার ছিল ট্রফি ও নগদ অর্থ ৩০০ পাউন্ড, ২য় পুরস্কার ট্রফি ও ১৫০ পাউন্ড, এবং ৩য় পুরস্কার ট্রফি। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন আব্দুল মুক্তাদির শামিম (লুটন) ও ফয়ছল আহমেদ (ক্যামব্রিজ)।

2

সিলেটে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন ৮০ ফুটবলার

79211জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন-এর যৌথ উদ্যোগে এবং সিলেট জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায় সিলেটে ৮০ ফুটবলারকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। ‘তৃণমূল পর্যায় থেকে বাছাইকৃত অনূর্ধ্ব-১৫ প্রতিভাবান খেলোয়াড় বাছাই ও প্রশিক্ষণ-২০১৬ (সিলেট জেলা)’- এই কর্মসূচীর আওতায় তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে সপ্তাহব্যাপী সময় তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে বুধবার থেকে। ওইদিন প্রশিক্ষণের উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম, বাফুফে’র কোচ জাহান-ই-আলম নুরী রাহেল, দুলাল হোসেন, এ.কে.এম মাহমুদ ইমন, তপন কুমার মালাকার।

প্রশিক্ষণার্থী ৮০ ফুটবলার সিলেটের ১৩টি জেলা থেকে অংশগ্রহণ করছেন।

মেসির জন্য নগ্ন হলেন নারী ভক্ত

79215দুই সন্তানের বাবা ফুটবল তারকা লিওনেল মেসি। দীর্ঘদিন ধরেই বান্ধবী অ্যান্তোনেলার সঙ্গে তার সম্পর্ক। তারপরেও এই ফুটবল তারকার নারী ভক্তের সংখ্যা কিন্তু কম নয়। হাজার হোক তিনি ফুটবলের রাজপুত্র। এবার এক নারী ভক্ত এবার নতুন ঢঙে ভালবাসা জানালেন আর্জেন্টাইন এই ফুটবল তারকাকে।

এই নারী ভক্তের নাম মিস বামবাম সুজি কোর্তেজ। বহুদিন ধরেই তিনি দাবি করে আসছেন, তিনিই নাকি মেসির বান্ধবী। মেসি যদিও এই ভক্তের কীর্তিকলাপের জন্য তাকে গত বছরই ব্লক করে দিয়েছেন। কিন্তু বার্সেলোনা সুপারস্টারের প্রতি সুজির ভালবাসায় এতটুকু ঘাটতি পড়েনি। বরং মেসির সন্তানের মা অ্যান্তোনেলা রকুজোকে টক্কর দেওয়ার যথাসাধ্য চেষ্টা চালিয়ে যান তিনি।

২০১৫ সালে সুজির নিতম্বে শ্যাম্পেন ঢালার ছবি চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল নেটদুনিয়ায়। যে কোন উপায়ে মেসিকে মুগ্ধ করতে মুখিয়ে থাকেন ব্রাজিলীয় সুজি। এবার ফের এমনই একটা কারণ খুঁজে বের করলেন তিনি।

কোপা দেল রে’র শেষ আটে রিয়াল সোসাইদাদকে ১-০ হারায় বার্সা। যদিও সে ম্যাচে একমাত্র গোল নেইমারের। তবে মেসির এই ভক্ত কোনও বাহানাই হাতছাড়া করতে চান না। তাই একদম অন্যরকমভাবে এই জয় সেলিব্রেট করলেন সুজি। বাথরুমের ভিতর উত্তেজক ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দিলেন। যেখানে প্রায় নগ্ন অবস্থাতেই দেখা গেল তাকে।

ছবি ক্যাপশনে লেখা, এই ছবি মেসির জন্যই তোলা৷ ইতিমধ্যেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে ছবিটি। মেসির চোখে কি সুজির এই নয়া পোজ ধরা পড়েছে কিনা সেই উত্তর এখনও অজানা। তবে সুজিকে যে তিনি একেবারেই পছন্দ করেন না, তাকে ব্লক করেই তা বুঝিয়ে দিয়েছেন এই ফুটবল তারকা।

ফিফার বর্ষসেরাও হলেন রোনালদো

78077ব্যালন ডি’অরের পর লিওনেল মেসিকে পেছনে ফেলে ফিফার বর্ষসেরার পুরস্কারও জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

সোমবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় সুইজারল্যান্ডের জুরিখে হওয়া এই অনুষ্ঠানেই আসেননি দ্বিতীয় হওয়া মেসি।

জার্মান মিডফিল্ডার মেলানি বেহরিনগের ও ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড মার্তাকে পেছনে ফেলে বর্ষসেরা নারী ফুটবলারের পুরস্কার পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের মিডফিল্ডার কার্লি লয়েড।

ফুটবল বিশ্বকে চমকে লেস্টার সিটিকে প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন করানোর মূল কারিগর ক্লাওদিও রানিয়েরি ফিফা বর্ষসেরা কোচের পুরস্কার পেয়েছেন।

ফিফা বর্ষসেরা গোলের পুরস্কার ‘পুসকাস অ্যাওয়ার্ড’ জিতেছেন মালয়েশিয়ার মিডফিল্ডার মোহাম্মদ ফাইজ সুবরি।

ফিফা ফেয়ার প্লে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে আতলেতিকো নাসিওনালকে। বিমান দুর্ঘটনায় অধিকাংশ খেলোয়াড় হারানো ব্রাজিলের ক্লাব শাপেকোয়েনসেকে কোপা সুদামেরিকানার চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করতে বলে ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ কলম্বিয়ার এই ক্লাবটি।

কিংবদন্তীদের পাশে মাশরাফি

76943তার ব্যাটিংটা বাংলাদেশের ক্রিকেট দর্শকদের একটা প্রজন্ম হয়তো ভুলেই গেছে। মাশরাফি নিজেও হয়তো ভুলে গেছেন যে একসময় লোয়ার মিডল অর্ডারে তার উপর নির্ভর করত দল।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দেখা গিয়েছিল তার ব্যাটিং ঝলক। হয়তো তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত পেস বোলিং অলরাউন্ডার হতে পারতেন। সেই প্রতিষ্ঠা পুরোপুরি না পেয়েও অলরাউন্ডার হিসেবে এক অনন্য কীর্তি গড়লেন ম্যাশ

ক্রাইস্টচার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে তিনি ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ১৫০০ রান, ২০০ উইকেট আর ৫০টি ক্যাচের মাইলফলকে পা রেখেছেন তিনি। তার আগে এই কীর্তি গড়েছেন মাত্র ১০ জন ক্রিকেটার। সেই সব ক্রিকেটারদের প্রায় সবাই কিংবদন্তির কাতারে আছেন। সেই দলে যোগ দিলেন আমাদের মাশরাফি।

এই তালিকায় স্থান পাওয়া বাকি ১০ ক্রিকেটার হলেন, কপিল দেব (ভারত), ওয়াসিম আকরাম (পাকিস্তান), সনাথ জয়সুরিয়া (শ্রীলঙ্কা), ক্রিস হ্যারিস (নিউজিল্যান্ড), ক্রিস কেয়ার্নস (নিউজিল্যান্ড), শেন ওয়ার্ন (অস্ট্রেলিয়া), চামিন্দা ভাস (শ্রীলঙ্কা), জ্যাক ক্যালিস (দক্ষিণ আফ্রিকা), শন পোলক (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও ড্যানিয়েল ভেট্টোরি (নিউজিল্যান্ড)।

যদিও মাশরাফির এই রেকর্ডের দিনে বাংলাদেশ দল বেশ বড় ব্যবধানে হেরে গেছে। দল জিতলে হয়তো বাংলাদেশ অধিনায়কের ভালো লাগত এই রেকর্ড গড়ে। বাংলাদেশের সব ক্রিকেটপ্রেমীদের মত তিনিও এখন চিন্তিত মুশফিকের ইনজুরি আর বুধবার অনুষ্ঠিতব্য দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ নিয়ে।

বিশ্বরেকর্ড গড়ল চট্টগ্রাম টেস্ট!

72635নানা কারনে এবার আলোচনায় এসেছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর। ওয়ানডে সিরিজের পর এখন এই দুই দলের মধ্যে চলছে টেস্ট ম্যাচ। ইংল্যান্ড-বাংলাদেশের মধ্যকার চলমান প্রথম টেস্ট ম্যাচটি একটি অনন্য বিশ্ব রেকর্ড গড়তে সক্ষম হয়েছে। তবে এই রেকর্ড কোন ব্যাট-বল দ্বারা হয়নি। বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড এই টেস্ট ম্যাচটি রেকর্ড গড়েছে রিভিউ নেওয়ার ক্ষেত্রে। এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ১০ বার রিভিউ নিয়ে বিশ্বরেকর্ডের খাতায় নাম লেখালেন মুশফিকুর রহিম-অ্যালিস্টার কুকের দল।  এই ঘটনা ঘটেছে টেস্টের ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে।

বৃহস্পতিবার ম্যাচের প্রথম দিন মঈন আলী সবমিলিয়ে পাঁচবার বেঁচে গেছেন। আর এই রিভিউয়ের কারণেই মঈন আলী পাঁচবার প্রাণ ফিরে পান। প্রথম দিনে নেওয়া সাতটি রিভিউয়ের পাঁচটিই ছিল মঈনের। দ্বিতীয় দিন শুক্রবার সকালে আরো তিনটি রিভিউ নেওয়া হয়। তবে দূর্ভাগ্য বলতে হবে বাংলাদেশেরেই। কেননা মোট দশটি রিভিউয়ের মাত্র দুটি বাংলাদেশের পক্ষে গেছে।

আজ ম্যাচের তৃতীয় দিন চলছে। তৃতীয় দিনের দ্বিতীয় সেশন পর্যন্ত ১৬টি রিভিউ নেওয়া হয়েছে। যা ক্রিকেট ইতিহাসে বিশ্বরেকর্ডের মর্জাদা পেয়েছে।

বাংলাদেশের টেস্ট দল ; চমকের আরেকনাম

18479বছরের শুরুর দিকে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে। টুর্নামেন্টে প্রথম ম্যাচটি যেখানে খেলেছিল বাংলাদেশ, নয় মাস পর সেই চট্টগ্রামেই মেহেদী হাসান মিরাজ পেয়ে যেতে পারেন স্বপ্নের টেস্ট ক্যাপ! বাংলাদেশের সবশেষ যুব দলের অধিনায়ক ডাক পেয়েছেন টেস্ট দলে।

শুধু মিরাজই নয়, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের বাংলাদেশ দলে চমক আর বদলের ছড়াছড়ি। সীমিত ওভারের নিয়মিত মুখ সাব্বির রহমান এবার সুযোগ পেলেন টেস্ট দলে। কার্যকর একটি পেস আক্রমণ গড়ার নিয়ত চেষ্টায় এবার ডাকা হয়েছে পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বিকে। ফিরেছেন আরেক পেসার শফিউল ইসলাম। ফিরেছেন অফস্পিনিং অলরাউন্ডার শুভাগত হোমও। সুযোগ পেয়েছেন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান।

সব মিলিয়ে গত বছরের জুলাই-অগাস্টে বাংলাদেশের সবশেষ টেস্ট স্কোয়াড থেকে পরিবর্তন ছয়টি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সেই দল থেকে এবার নেই মুস্তাফিজুর রহমান, জুবায়ের হোসেন, লিটন দাস, মোহাম্মদ শহীদ, নাসির হোসেন ও রুবেল হোসেন।

১৪ সদস্যের দলে পেসার মাত্র দুজন। একাদশে তিন স্পিনার খেলানোর ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন নির্বাচকরা।

জেনুইন অলরাউন্ডার হলেও মিরাজকে নেওয়া হয়েছে মূলত বোলিং সামর্থ্যের কারণে। সাকিব আল হাসান ও তাইজুল থাকায় তৃতীয় আর কোনো বাঁহাতি স্পিনার চাননি নির্বাচকেরা।

লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেন হারিয়েছেন নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্টের ভরসা। নির্বাচকরা বেছে নিয়েছেন অফ স্পিনার মিরাজ ও শুভাগতকে।

১২টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ৪১ উইকেট নিয়েছেন মিরাজ। এর মধ্যে গত জাতীয় লিগেই ৫ ম্যাচে নিয়েছিলেন ৩০ উইকেট। ব্যাট হাতে ১৪ ইনিংসে গড় ৪০.৩০, অর্ধশত ৫টি।

শুভাগতকে ফেরানোর পেছনেও নির্বাচকরা জানালেন তার স্পিন সামর্থ্যের কথা। ইংল্যান্ডের বেশ কজন ব্যাটসম্যান বাঁহাতি বলে দুজন অফ স্পিনার রেখেছেন নির্বাচকরা।

কামরুল দেশের ক্রিকেটে খেলছেন বেশ কবছর ধরেই। মোটামুটি পারফর্মও করেছেন। জাতীয় দলের দরজায় কড়া নাড়ছিলেন বেশ কিছু দিন ধরেই। গত বছর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে থাকলেও আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়নি রাব্বির। ৪৭টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে তার উইকেট ১০৩টি।

শফিউল সবশেষ টেস্ট খেলেছেন ২০১৪ সালের নভেম্বরে, চট্টগ্রামেই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। ২০১০ সালে এই চট্টগ্রামেই অভিষেক। ৮ টেস্ট খেলে নিয়েছেন ১৫ উইকেট। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে ফিরেছিলেন ওয়ানডেতে। ফেরার চক্র পূরণ করলেন টেস্ট দলে জায়গা পেয়ে।

গত মৌসুমের শেষ তিন টেস্টে কিপিং গ্লাভস ছেড়ে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবেই খেলেছেন মুশফিকুর রহিম। কিপিং সামলেছেন লিটন; উইকেটের সামনে-পেছনে খারাপ ছিল না পারফরম্যান্স। কিন্তু জাতীয় লিগের ম্যাচে কাঁধে চোট পাওয়াটাই কাল হলো লিটনের। চোট সারলেও ম্যাচ খেলার মত ফিট নন এখনও। সুযোগ পেলেন নুরুল হাসান।

অনেক দিন থেকেই নুরুলকে মনে করা হচ্ছে দেশের সেরা উইকেটকিপার। জাতীয় দলের বিবেচনায় এর আগে মূলত টি-টোয়েন্টি স্পেশালিস্ট হিসেবেই ভাবা হয়েছে তাকে। ৬টি টি-টোয়েন্টি খেলে জায়গা হারিয়েছেন দলে। তবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেও রেকর্ড তার যথেষ্টই উজ্জ্বল। ৪৯টি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে করেছেন ৫টি সেঞ্চুরি, ব্যাটিং গড় ৪১.৮১। সপ্তাহখানেক আগেই জাতীয় লিগে করেছেন দারুণ এক সেঞ্চুরি।

ঘরোয়া ক্রিকেটে রানের বন্যা বইয়ে দেওয়ার পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচেও রান পেয়েছিলেন শাহরিয়ার নাফীস। তবু খুলতে পারেননি ফেরার দরজা। সাম্প্রতিক ফর্ম নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও টিকে গেছেন সৌম্য সরকার।

আগামী বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড।

প্রথম টেস্টের বাংলাদেশ দল: মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মাহমুদউল্লাহ, সাকিব আল হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজ, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, তাইজুল ইসলাম, শুভাগত হোম চৌধুরী, শফিউল ইসলাম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, নুরুল হাসান।

দুই বছর পর সিরিজ হারল বাংলাদেশ

18479২০১৪ সালের নভেম্বরে শুরু হয়েছিল এই জয়যাত্রা। অবশেষে এসে থামল ২০১৬ সালের অক্টোবরে। টানা প্রায় দুই বছর পর ওয়ানডেতে কোনো সিরিজ হারল বাংলাদেশ। ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকার মতো দলকে হারানো গেলেও পারা গেল না ইংল্যান্ডকে। আজ সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে বাংলাদেশ হেরে গেল ৪ উইকেটে।

বাংলাদেশের দেওয়া ২৭৮ রানের লক্ষ্যটা এক রকম অনায়াসে ছুঁয়ে ফেলল ইংল্যান্ড। ৪৭তম ওভারের পঞ্চম বলে ইংল্যান্ড জিতল বটে, তবে ইংল্যান্ডের ব্যাটিংয়ের সময় একবারও মনে হয়নি, ম্যাচটা তারা হারতে পারে। জিততে হলে চট্টগ্রামের এ মাঠে রান তাড়া করে জেতার নতুন রেকর্ড গড়তে হতো। কন্ডিশন এতটাই ইংলিশদের দিকে হাত মেলে দিল, বাংলাদেশের বোলাররা হয়ে গেল নির্বিষ। ইংল্যান্ড রেকর্ড গড়েই জিতল ম্যাচ। প্রতিপক্ষের মাঠে তৃতীয় বৃহত্তম রান তাড়া করা জয় এটি ইংল্যান্ডের জন্য।

বাংলাদেশ আক্ষেপ করতে পারে, ব্যাটিংয়ে আরও ২০-৩০ রান হয়তো বেশি তোলার সুযোগ ছিল। এ নিয়ে আক্ষেপ না হলেও বাংলাদেশের নিশ্চিত আক্ষেপ হবে সিরিজের প্রথম ম্যাচ নিয়ে। ৫২ বলে ৩৯ রান দরকার, হাতে ৬ উইকেট-এই সমীকরণও মেলাতে পারেনি বাংলাদেশ। সিরিজ জয়ের জন্য চট্টগ্রাম পর্যন্ত তো আসতেই হয় না!

তবু আক্ষেপ ঝেড়ে দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানো বাংলাদেশকে আজ ব্যাটিংয়েও বেশ উজ্জীবিত মনে হয়েছে। কিন্তু তখনো বোঝা যায়নি, ম্যাচটা এত সহজে জিতে যাবে ইংল্যান্ড! টানা ছয়টি সিরিজ জেতার পর অবশেষে হারের মুখ দেখতে হলো মাশরাফি বিন মুর্তজার দলকে। এই ম্যাচেই মাশরাফি বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি উইকেট (২১৬টি) নেওয়ার রেকর্ড গড়েছেন। কিন্তু অধিনায়কের বিমর্ষ মুখটাই দেখতে হলো।

টেস্টে মাশরাফি থাকছেন না। কিন্তু তাঁর লড়াইয়ের প্রেরণা খুব দরকার। ২০ অক্টোবর থেকে শুরু হবে দুই টেস্টের সেই সিরিজ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ: ৫০ ওভারে ২৭৭/৬ (তামিম ৪৫, ইমরুল ৪৬, সাব্বির ৪৯, মাহমুদউল্লাহ ৬, মুশফিক ৬৭*, সাকিব ৪, নাসির ৪, মোসাদ্দেক ৩৮; রশিদ ৪/৪৩, স্টোকস১/২৪, আলী ১/৪২)

ইংল্যান্ড: ৪৭.৫ ওভারে ২৭৮/৬ (ভিন্স ৩২, বিলিংস ৬২, ডাকেট ৬৩, বেয়ারস্টো ১৫, স্টোকস ৪৭*, বাটলার ২৫, আলী ১, ওকস ২৭*; মাশরাফি ২/৫১, শফিউল ২/৬১, সাকিব ০/৪৫, তাসকিন ০/৪৬, নাসির ১/৫৩, মোসাদ্দেক ১/২২)

ফল: ইংল্যান্ড ৪ উইকেটে জয়ী।
সিরিজ: ইংল্যান্ড ২-১ ব্যবধানে জয়ী।

Developed by: