ষষ্ঠ দিনে গড়ালো উদ্ধার তৎপরতা

9-01মাওয়া ঘাটের কাছে পদ্মা নদীতে ডুবে যাওয়া পিনাক-৬ নামের লঞ্চটিকে এখনো শনাক্ত করা যায়নি। ষষ্ঠ দিনেও ডুবে যাওয়া লঞ্চটির হদিস পেতে অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছে জরিপ-১০ ও কান্ডারি-২।
এদিকে পদ্মার পাড়ে নিখোঁজদের সন্ধানে এখনো অপেক্ষা করছেন স্বজনরা। এ পর্যন্ত ৪১ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

জানা গেছে, প্রবল স্রোতের কারণে অনুসন্ধান ও উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হচ্ছে। শুক্রবার সারাদিন পূর্ণ শক্তি প্রয়োগের পর রাতেও অব্যাহতভাবে উদ্ধার তৎপরতা পরিচালনা করা হয়। রাতভর পিনাক-৬ এর খোঁজে অনুসন্ধানে নিযুক্ত করা হয় সন্ধানী, তিস্তা, তুরাগ, ববিথ ও জরিপ-১০ নামের উদ্ধারকারী ৫টি জাহাজ। কিন্তু ৫ জাহাজের মিলিত অনুসন্ধানেও পদ্মায় তলিয়ে যাওয়া পিনাক-৬ এর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। তবে রাত ৩টার দিকে ভোলার দৌলতখান থেকে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার করা ওই শিশুসহ এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪১।

এখন পর্যন্ত ২৩ জনের মৃতদেহ শনাক্ত করে তাদের স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মাদারীপুরের শিবচরে ১৭টি মৃতদেহ দাফন করা হয়েছে।

গত সোমবার ৩ শতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবে যাওয়া লঞ্চটির শতাধিক যাত্রী এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

Developed by: