বিভাগ: বই পত্র

শাহরুখের সঙ্গে ট্রেনে সারারাত সানি লিওন

79230মুম্বাই থেকে দিল্লি। বোরকা পরে ট্রেনে গিয়ে উঠলেন সানি লিওন। সেই ট্রেনেই আছেন বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খান। রাতভর এক ট্রেনেই কাটিয়ে দিলেন তারা। দিল্লি পৌঁছার আঁধাঘন্টা আগে সানি ট্যুইটারে ছবি পোস্ট করে বিষয়টা জানান দিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন।

মূলত শাহরুখ দলবল নিয়ে নেমেছেন তার রইস ছবির প্রচারণায়। এ ছবিতে সানি লিওনের ‘লায়লা ম্যায় লায়লা’ গানটি বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। যদিও ‘রইস’ ছবিতে অভিনেত্রী সানি লিওনের উপস্থিতি মাত্র ওই একটি আইটেম গানেই সীমাবদ্ধ। তবে এটাই তার কাছে অনেক বড় পাওয়া বলে মন্তব্য সানিরই। ছবির মূল নায়িকা মাহিরা খান পাকিস্তানি হওয়ায় প্রচারণায় থাকতে পারছেন না। আর এ সুযোগেই ৫১ বছর বয়সী বলিউড বাদশার সঙ্গে ট্রেনে চড়ে বসলেন ৩৪ বছরের সানি। ‘রইস’ মুক্তি পায় বুধবার (২৫ জানুয়ারি)।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) মুম্বাই স্টেশনে এসে ট্রেনে ওঠেন সানি লিওন। কেউ যেন চিনতে না পারে সেজন্য বোরকা পরেন তিনি। সেখান থেকে স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটা ৪০ মিনিটে অগাস্ট ক্রান্তি এক্সপ্রেসে শাহরুখের সঙ্গে ট্রেনে রওনা দেন সানি লিওন। যাত্রীদের মধ্যে ছিলেন সানি লিওনের স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবারও। মঙ্গলবার পৌনে ১১টায় দিল্লির নিজামুদ্দিন স্টেশনে পৌঁছান তারা।

মাঝপথেই জানাজানি হয়— ট্রেনটিতে শাহরুখ, ‘রইস’-এর পরিচালক রাহুল ধোলাকিয়া এবং প্রযোজক রিতেশ সিধওয়ানির পাশাপাশি সানি লিওনও আছেন। হুমড়ি খেয়ে পড়ে ভক্তরা। কিন্তু দেখা মেলেনি। বড়োদরা স্টেশনে ট্রেন থামার পর জানালার পর্দা সরিয়ে উঁকি দিয়ে ভক্তদের উন্মাদনা দেখে চোখ কপালে উঠে যায় সানি লিওনের! অনেকে বগির উপরে উঠে শাহরুখ ও সানি বলে চিৎকার করছেন। তাদেরকে নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে।

ইঞ্জিন বদলানোর জন্য বড়োদরায় দশ মিনিটের জন্য থামতে হয়েছে ট্রেনটিকে। এই সুযোগে ভক্তরা বাঁধভাঙা হয়ে ওঠে। শাহরুখ তাদেরকে হাত নেড়ে জবাব দিয়েছেন। পরে স্থানীয় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

দিল্লি পৌঁছার আধ ঘণ্টা আগে টুইটারে ছবি পোস্ট করে সানি লিওন লিখেছেন, ‘ট্রেন যাত্রা! গন্তব্যের কাছাকাছি চলে এসেছি। সবচেয়ে চমৎকার ভ্রমণ!’

১৯৮০ সালের হিট ছবি ‘কুরবানি’র জনপ্রিয় গান ‘লায়লা ও লায়লা’ নতুন আঙ্গিকে সাজানো হয়েছে ‘রইস’-এর জন্য। ‘লায়লা ম্যায় লায়লা’ শিরোনামের গানটিতে নেচেছেন সানি লিওন। গত সপ্তাহে সালমান খানের সঞ্চালনায় ‘বিগ বস টেন’-এ শাহরুখের সঙ্গে ছবিটির প্রচারণায় অংশ নেন তিনি।

যে মেলায় কুমারী মেয়েদের বিক্রি করা হয়!

79232এক অদ্ভুত মেলা। সদ্য যৌবনপ্রাপ্ত মেয়ে থেকে শুরু করে বিভিন্ন বয়সের মহিলারা এই মেলায় অংশ নেন স্রেফ জীবনসঙ্গীকে খুঁজে বের করতে। তবে শর্ত একটাই, বিবাহেচ্ছু মহিলাদের কুমারী হওয়াটা বাধ্যতামূলক।

আসলে বুলগেরিয়ার স্তারা জাগোরা নামে এই অঞ্চলের রোমা জনগোষ্ঠীর মহিলারা এভাবেই বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। রোমা জনজাতি মূলত তামার বিভিন্ন জিনিসপত্র তৈরি করে থাকে। এটাই এদের রুজি-রুটি। বুলগেরিয়াতে এদেরকে অনেকে কালাইদঝি বলেও ডাকে।

দারিদ্র্য আর অনটন এদের নিত্যসঙ্গী। ফলে, বিবাহের মতো ব্যয়বহুল আনুষ্ঠানের আড়ম্বর এদের পক্ষে সম্ভব হয় না। তাই, এই মেলাই রোমা জনজাতির কাছে জীবনসঙ্গিনী খুঁজে পাওয়ার একমাত্র জায়গা। পাত্রীর সাজে মেলায় আসা মহিলাদের শুধু পছন্দ করলেই হবে না, পুরুষদের এর জন্য খসাতে হয় টাকাও। কারণ, যে পুরুষের যে মহিলাকে জীবনসঙ্গিনী হিসাবে পছন্দ হবে, তার জন্য তাকে যথার্থ দাম দিতে হয়। কয়েক লক্ষ টাকা পর্যন্ত দর ওঠে মেলায় পাত্রী হিসাবে যোগ দেওয়া নারীদের।

কোন পাত্রী কেমন দর পাবেন, তা নির্ভর করে তাঁর সৌন্দর্য থেকে শুরু করে সাজপোশাক, আচার ব্যবহারের উপরে। মেলার নিয়ম অনুসারে, মেয়েরা যেখানে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকতে পারেন অথবা মেলার জন্য প্রস্তুত মঞ্চেও নিজেদের পাত্রী হিসাবে তুলে ধরতে পারেন। মঞ্চে ওঠা মেয়েদের জন্য নিলামের মতো দরও হাঁকাহাঁকি হয়। আবার পুরুষরা মঞ্চে থাকা নারীদের সঙ্গে সেখানে নাচা-গানাতেও অংশ নিতে পারেন। এরপরই পছন্দের নারীর জন্য দর হাঁকতে পারেন তিনি।

এই মেলায় অংশ নিতে মেয়েদের সাজপোশাকও হতে হয় চটকদার। এখানে নাবালক দম্পতি দণ্ডণীয় অপরাধ হিসাবে গণ্য হয় না। ফলে, ১৩ বছরের মেয়ের সমবয়সি পুরুষসঙ্গী এখানে একেবারেই বিরল নয়। এমনও দেখা গিয়েছে, বাবা-মায়েরা ছেলে-মেয়েকে অল্প বয়সেই এই মেলার অংশগ্রহণের জন্য নিয়ে এসেছে। কারণ, বাবা-মায়েদের ধারণা, বেশি দেরি করলে হয়তো ছেলে-মেয়েকে সারা জীবন চিরকুমার বা চিরকুমারী হয়েই কাটাতে হবে। বছরে চার বার এই মেলা বসে। সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় বসন্তের মেলা।

সূত্র: এবেলা

মেসির জন্য নগ্ন হলেন নারী ভক্ত

79215দুই সন্তানের বাবা ফুটবল তারকা লিওনেল মেসি। দীর্ঘদিন ধরেই বান্ধবী অ্যান্তোনেলার সঙ্গে তার সম্পর্ক। তারপরেও এই ফুটবল তারকার নারী ভক্তের সংখ্যা কিন্তু কম নয়। হাজার হোক তিনি ফুটবলের রাজপুত্র। এবার এক নারী ভক্ত এবার নতুন ঢঙে ভালবাসা জানালেন আর্জেন্টাইন এই ফুটবল তারকাকে।

এই নারী ভক্তের নাম মিস বামবাম সুজি কোর্তেজ। বহুদিন ধরেই তিনি দাবি করে আসছেন, তিনিই নাকি মেসির বান্ধবী। মেসি যদিও এই ভক্তের কীর্তিকলাপের জন্য তাকে গত বছরই ব্লক করে দিয়েছেন। কিন্তু বার্সেলোনা সুপারস্টারের প্রতি সুজির ভালবাসায় এতটুকু ঘাটতি পড়েনি। বরং মেসির সন্তানের মা অ্যান্তোনেলা রকুজোকে টক্কর দেওয়ার যথাসাধ্য চেষ্টা চালিয়ে যান তিনি।

২০১৫ সালে সুজির নিতম্বে শ্যাম্পেন ঢালার ছবি চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল নেটদুনিয়ায়। যে কোন উপায়ে মেসিকে মুগ্ধ করতে মুখিয়ে থাকেন ব্রাজিলীয় সুজি। এবার ফের এমনই একটা কারণ খুঁজে বের করলেন তিনি।

কোপা দেল রে’র শেষ আটে রিয়াল সোসাইদাদকে ১-০ হারায় বার্সা। যদিও সে ম্যাচে একমাত্র গোল নেইমারের। তবে মেসির এই ভক্ত কোনও বাহানাই হাতছাড়া করতে চান না। তাই একদম অন্যরকমভাবে এই জয় সেলিব্রেট করলেন সুজি। বাথরুমের ভিতর উত্তেজক ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দিলেন। যেখানে প্রায় নগ্ন অবস্থাতেই দেখা গেল তাকে।

ছবি ক্যাপশনে লেখা, এই ছবি মেসির জন্যই তোলা৷ ইতিমধ্যেই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে ছবিটি। মেসির চোখে কি সুজির এই নয়া পোজ ধরা পড়েছে কিনা সেই উত্তর এখনও অজানা। তবে সুজিকে যে তিনি একেবারেই পছন্দ করেন না, তাকে ব্লক করেই তা বুঝিয়ে দিয়েছেন এই ফুটবল তারকা।

মিশা সওদাগরের নায়িকা শাবনূর, ছবির প্রযোজক গায়ক আসিফ!

77950রূপালি পর্দায় জনপ্রিয় অভিনেতা মিশা সওদাগরকে সাত শতাধিক চলচ্চিত্রে দাপুটে খল-অভিনেতা হিসেবে দেখা গেছে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, ক্যারিয়ারের দীর্ঘ দুই যুগ পর এবার তাকে দেখা যাবে নায়ক হিসেবে। আর নায়িকা হিসেবে রূপালি পর্দায় অভিনয় করবেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী শাবনূর।

মিশা-শাবনূর জুটি বেঁধে ‘বাপের দোয়া কি কম দামি’ শিরোনামের একটি ছবিতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন। ছবিটি পরিচালনা করবেন সুমন দে। আর প্রযোজনা করবেন কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবর।

নির্মাতা সুমন দে বলেন, ‘এ ছবিতে মিশা সওদাগর অভিনয় করবেন এটি চূড়ান্ত। তার নায়িকা হিসেবে শাবনূরের কথা ভাবা হয়েছে। শাবনূর এখন অস্ট্রেলিয়ায় আছেন। তার সঙ্গে মুঠোফোনে প্রাথমিক কথা হয়েছে। তিনি ছবিতে কাজ করার আগ্রহ দেখিয়েছেন। দেশে ফেরার কথা জানিয়েছেন ফেব্রুয়ারিতে। তখনই তার সঙ্গে চুক্তির আনুষ্ঠানিকতা হবে।’

সুমন দে আরো বলেন, ‘যদি কোনো কারণে শাবনূরকে আমরা এই ছবিতে না পাই, তবে দ্বিতীয় চয়েজ রেখেছি কলকাতার ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে।’

মিশা বলেন, ‘ছবির গল্পটি আমি শুনেছি। দুর্দান্ত লেগেছে আমার কাছে। আর প্রযোজনায় থাকছে আমাদের সবার প্রিয় আসিফ। তাই আমি কাজটি করতে রাজি হয়েছি। শনিবার রাতে এ বিষয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছি। সামনে শিল্পী সমিতির নির্বাচন শেষে এ ছবির কাজ শুরু করো।’

আসিফ বলেন, ‘ছবির চিত্রনাট্য তৈরি এবং চরিত্র বিন্যাস নিয়ে ভাবছি। পরিবারের প্রধান কর্তা বাবাকে কেন্দ্র করে তৈরি হবে আমার প্রযোজিত প্রথম ছবি। আপাতত কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করবেন মিশা ভাই। তাকে চূড়ান্ত করা হয়েছে। বাকিগুলো কিছুদিনের মধ্যে ঠিক করে ফেলব।’

নির্মাতা সুমন দে আশা প্রকাশ করেছেন, সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী মার্চেই ‘বাপের দোয়া কি কম দামি’ ছবির নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

শাহরুখ খানের মেয়ের সঙ্গে ডেটিং করতে যে নিয়ম মানতে হবে

78049সুপার স্টার শাহরুখ খানের মেয়ে সুহানা এখন বলিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় সেলিব্রিটি কিডসের মধ্যে একজন। অনেক যুবকই সুহানার সঙ্গে ডেটিং-এর স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু সুহানার সঙ্গে ডেটিং-এ যাওয়া মোটেই সহজ নয়। সুহানার সঙ্গে ডেট-এ যেতে গেলে মেনে চলতে হবে সাতটা নিয়ম। এই সাতটা নিয়ম অবশ্য সুহানার তৈরি নয়। বরং খোদ শাহরুখই তৈরি করে দিয়েছেন এই নিয়মগুলি। সম্প্রতি দেশটির একটি পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, সুহানার সঙ্গে প্রেম করা অত সহজ নয়। তার বক্তব্য, তার মেয়ের বয়ফ্রেন্ডকে মানতে হবে এই সাতটি নিয়ম-

১. ছেলেটির চাকরি থাকতে হবে।
২. তাকে এটা বুঝতে হবে যে, আমি অর্থাৎ শাহরুখ খান, তাকে একেবারেই পছন্দ করি না।
৩. জানতে হবে যে, আমি সর্বক্ষণ তার উপর নজর রাখছি।
৪. সে যেন এক জন উকিলের সঙ্গে সব সময়ে যোগাযোগ রাখে। কারণ যে কোন মুহূর্তে তাকে আইনি ঝামেলায় পড়তে হতে পারে।
৫. তাকে মনে রাখতে হবে যে, সুহানা আমার রাজকন্যা, সে তাকে আমার কাছ থেকে ছিনিয়ে নিতে পারেনি।
৬. যদি সুহানাকে সে বিরক্ত করে, তা হলে আমি জেলে যেতেও প্রস্তুত।
৭. ছেলেটি সুহানার সঙ্গে যেমন আচরণ করবে, আমার কাছ থেকেও সে তেমন আচরণই পাবে। সূত্র: এবেলা।

সিলেটে ‘ভাড়া বাড়া’ আতঙ্ক!

78073সিলেট মহানগরীতে অন্তত দুই থেকে আড়াই লাখ মানুষের বসবাস ভাড়া বাসায়। বছরের শুরুতেই এসব ভাড়াটিয়াদের বাসার ভাড়া বেড়ে যাওয়ার আতঙ্ক চেপে ধরে। কোনো ধরনের কারণ ছাড়াই বছরের শুরুতেই বাসার ভাড়া বাড়িয়ে দেওয়াকে ‘রীতি’তে পরিণত করেছেন সিলেটের বাসা মালিকরা। বছরের শুরুতেই তাই ভাড়াটিয়ারা থাকেন ‘ভাড়া বাড়া’ আতঙ্কে। এবারও চলতি জানুয়ারিতে নগরীর অনেক স্থানেই বাসা ভাড়া বাড়িয়ে দিয়েছেন মালিকরা।

সিলেট মহানগরীতে কতো সংখ্যক মানুষ ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করছেন, তার সঠিক পরিসংখ্যান নেই সিটি করপোরেশনের (সিসিক) কাছে। তবে সংশ্লিষ্টদের ধারণা, মহানগরীতে অন্তত দুই থেকে আড়াই লাখ মানুষ ভাড়া বাসায় বসবাস করেন। তন্মধ্যে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ, কলেজ, নার্সিং ইনস্টিটিউটে অধ্যয়নরত অন্তত অর্ধ লাখ শিক্ষার্থী নগরীর বিভিন্ন স্থানে বাসা ভাড়া (মেস) নিয়ে থাকছেন।

এছাড়া বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তিরা বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। এর বাইরে ব্যবসা-বাণিজ্যের কারণে মহানগরীতে অনেকেই বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন। সবমিলিয়ে ভাড়াটিয়াদের সংখ্যা দুই লাখের বেশি হবে বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা।

বছরের শুরুতেই এসব ভাড়াটিয়াদের পড়তে হয় ‘ভাড়া বাড়া’ আতঙ্কে। বাসা মালিকরা হুটহাট এসেই বাড় ভাড়ার নোটিশ ধরিয়ে দেন। এ নিয়ে ভাড়াটিয়ারা প্রশ্ন তুললেই বাসা মালিকরা সাফ জানিয়ে দেন, ‘ভাড়া নিয়ে আপনার আপত্তি থাকলে বাসা ছেড়ে দিন’!

সিলেট নগরীর সাপ্লাইয়ে অন্তরঙ্গ আবাসিক এলাকার ভাড়াটিয়া শাহ আফজল বলেন, ‘বর্তমান বাসায় তিন বছর ধরে আছি। প্রত্যেক বছরের শুরুতেই মালিক ভাড়া বাড়িয়েছেন। আমাদের কোনো আপত্তিই কানে নেননি মালিক।’

একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নগরীর শিবগঞ্জ এলাকার ভাড়াটিয়া খন্দকার জামিল বলেন, ‘চাকুরির কারণে বাধ্য হয়ে শহরে ভাড়া বাসায় থাকতে হচ্ছে। বাসা মালিক বছরের শুরুতে তো বটেই, বিদ্যুতের দাম বাড়লে, গ্যাসের দাম বাড়লে কিংবা কোনো কারণ ছাড়াই হুটহাট ভাড়া বাড়িয়ে দেন। বাসা ভাড়ার সাথে তাল মিলিয়ে চাকুরিতে স্যালারি বাড়ে না। ফলে খরচ কুলিয়ে ওঠতে চরম হিমশিম খেতে হচ্ছে।’

দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, সিলেট মহানগরীতে গত এক যুগে বাসাভাড়া বেড়েছে অন্তত দুই থেকে তিনগুণ। বাসাভাড়া বাড়ানোর ক্ষেত্রে কোনো ধরনের নীতিমালা না থাকায় বাসা বা বাড়ি মালিকরা ইচ্ছামতো ভাড়া বাড়িয়ে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। ভাড়া বাড়ানোর ক্ষেত্রে বাসা মালিকদের স্বেচ্ছাচারিতা নিয়ে অনেক ভাড়াটিয়া সিটি করপোরেশনে অভিযোগ করলেও নীতিমালা না থাকায় ব্যবস্থা নিতে পারেন না সংশ্লিষ্টরা।

সিলেটভিউ২৪ডটকম’র এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব বলেন, ‘মহানগরীতে কতো সংখ্যক ভাড়াটিয়া আছেন, তার কোনো তথ্য আমাদের কাছে নেই।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গত একযুগে মহানগরীতে বাসা ভাড়া অন্তত দুই থেকে তিনগুণ বেড়েছে।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে এনামুল হাবীব বলেন, ‘অনেক সময়ই ভাড়া সংক্রান্ত বিষয়ে সিটি করপোরেশনে অভিযোগ দেন ভাড়াটিয়ারা। তবে নির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকায় এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা সম্ভব হয় না।’

ফিফার বর্ষসেরাও হলেন রোনালদো

78077ব্যালন ডি’অরের পর লিওনেল মেসিকে পেছনে ফেলে ফিফার বর্ষসেরার পুরস্কারও জিতেছেন রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো।

সোমবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় সুইজারল্যান্ডের জুরিখে হওয়া এই অনুষ্ঠানেই আসেননি দ্বিতীয় হওয়া মেসি।

জার্মান মিডফিল্ডার মেলানি বেহরিনগের ও ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড মার্তাকে পেছনে ফেলে বর্ষসেরা নারী ফুটবলারের পুরস্কার পেয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের মিডফিল্ডার কার্লি লয়েড।

ফুটবল বিশ্বকে চমকে লেস্টার সিটিকে প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন করানোর মূল কারিগর ক্লাওদিও রানিয়েরি ফিফা বর্ষসেরা কোচের পুরস্কার পেয়েছেন।

ফিফা বর্ষসেরা গোলের পুরস্কার ‘পুসকাস অ্যাওয়ার্ড’ জিতেছেন মালয়েশিয়ার মিডফিল্ডার মোহাম্মদ ফাইজ সুবরি।

ফিফা ফেয়ার প্লে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে আতলেতিকো নাসিওনালকে। বিমান দুর্ঘটনায় অধিকাংশ খেলোয়াড় হারানো ব্রাজিলের ক্লাব শাপেকোয়েনসেকে কোপা সুদামেরিকানার চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করতে বলে ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ কলম্বিয়ার এই ক্লাবটি।

সাড়ে ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সিলেট বার হলের উদ্বোধন

78081প্রায় সাড়ে ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির নবনির্মিত বার হল-৫ এর নতুন ভবনের উদ্বোধন করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টায় আদালত প্রাঙ্গনে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে ভবনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তিনি।

দীর্ঘ ছয় বছর পর ভবনের উদ্বোধন করায় আদালতের আইনজীবীদের মাঝে উচ্ছাস বিরাজ করছে। ভবনটি নির্মাণের ফলে ৫ নম্বর বারের আইনজীবীদের পেশাগত কার্যক্রমের দুর্ভোগ যেমন কমবে, তেমন বিচার প্রার্থী লোকজনও এর সুফল ভোগ করবেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে, উদ্বোধন উপলক্ষে আদালত প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতি। সমিতির সভাপতি একেএম শমিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সিলেট আদালত নিয়ে তাঁর শৈশব-কৈশোরের স্মৃতিমাখা মূহুর্তের কথা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, স্কুল জীবনে প্রায়শই আইনজীবী সমিতির বার্ষিক সভায় প্রতিযোগিতায় অনুষ্ঠানে যোগ দিতেন তারা। সেসময়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে এই প্রতিযোগিতা নিয়ে অন্যরকম উচ্ছাস বিরাজ করত। মানসিক সুস্থ্যতা ও রুচির বিকাশে এসবের দরকার। তাই তিনি সমিতির নেতৃবৃন্দকে আগের সেই কার্যক্রম পুনরুদ্ধার অথবা চলমান রাখার আহ্বান জানান।

অর্থমন্ত্রী আরও উল্লেখ করেন, সিলেটের আইনজীবী সমিতি শত বছরের পুরনো একটি সমিতি। বৃটিশ শাসনের সময়ে সিলেটকে আসামের সাথে যুক্ত করা হয়। তবে শর্ত ছিল এখানকার শিক্ষা ব্যবস্থায় কলকাতার প্রাধান্য থাকবে তবে বিচার ব্যবস্থা চলবে বাংলার আইনে। অর্থ্যা আসামের কোট এখানে একদিনের জন্যও বসেনি।

সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মো. জোবায়ের বখত জুবেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেটের জেলা ও দায়রা জজ মনির আহমেদ পাটোয়ারী, সিলেট মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধা, জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. একেএম আবদুল মুমেন ও সিলেট গণপূর্ত অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. আমিনুল ইসলাম।

গণপূর্ত বিভাগের তত্বাবধানে ৪ কোটি ২১ লাখ টাকা ব্যয় ধরে পাঁচ তলা বিশিষ্ট এই ভবনের প্রতি তলায় রয়েছে বার হল, এডভোকেট চেম্বার, লিফট, বাথরুম, ইউরিনাল ও টয়লেট। ভবনের সর্বমোট পরিসর ২১ হাজার ৮শ ৮৩ দশমিক ৭২ বর্গফুট।

শুভ জন্মদিন কবি ফকির ইলিয়াস

fb_img_1482914284357আজ ২৮ ডিসেম্বর বুধবার এই সময়ের বিশিষ্ট কবি প্রাবন্ধিক, গল্পকার, গ্রন্থসমালোচক, সাংবাদিক ফকির ইলিয়াস এর জন্মদিন। ১৯৬২ সালের এই দিনে তিনি সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন।
প্রবাসে বাংলা সাহিত্য, সংস্কৃতি, কৃষ্টি- লালন ও চর্চায় তিনি নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থসংখ্যা চৌদ্দটি। উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ-`অবরুদ্ধ বসন্তের কোরাস`, `বৃত্তের ব্যবচ্ছেদ`, `গুহার দরিয়া থেকে ভাসে সূর্যমেঘ`, `ছায়াদীর্ঘ সমুদ্রের গ্রাম`, `গৃহীত গ্রাফগদ্য`, `অনির্বাচিত কবিতা`। এছাড়াও `কবিতার বিভাসূত্র` (প্রবন্ধ সংকলন), `চৈতন্যের চাষকথা` (গল্প সংকলন), `অনন্ত আত্মার গান` (গীতি সংকলন) এর জন্য তিনি নন্দিত হয়েছেন পাঠক মহলে।
২০১৬ সালে বেরিয়েছে তার সর্বশেষ প্রবন্ধগ্রন্থ ‘সাহিত্যের শিল্পঋণ’। আসছে বইমেলা-২০১৭ তে তার তিনটি গ্রন্থ প্রকাশের কথা রয়েছে।

তার লেখা নিয়মিত ছাপা হচ্ছে ঢাকা ,কলকাতা, লন্ডন, নিউইয়র্ক, কানাডা, সুইডেন, ইতালী, অষ্ট্রেলিয়া, জাপানসহ দেশে-বিদেশের বিভিন্ন দৈনিক, সাপ্তাহিক, ম্যাগাজিন, সাহিত্যপত্রে। ওয়েব, ব্লগ, ই নিউজ গ্রুপেও তিনি লিখছেন নিয়মিত। সাহিত্য কর্মের জন্য তিনি `ফোবানা সাহিত্য পুরস্কার` , `ঠিকানা শ্রেষ্ঠ গ্রন্থ পুরস্কার` পেয়েছেন। তিনি দ্যা একাডেমি অব আমেরিকান পোয়েটস, দ্যা এ্যমেনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল, কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিষ্টস, আমেরিকান ইমেজ প্রেস- এর সদস্য। সহধর্মিনী কবি ফারহানা ইলিয়াস তুলি ও দু`কন্যা নাহিয়ান ইলিয়াস ও নাশরাত ইলিয়াসকে নিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন নিউইয়র্কে।

মাসিক বাসিয়া ও বাসিয়া টুয়েন্টি ফোর ডটকমের পক্ষ থেকে কবির জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়ে পাঠকদের জন্য কবির একগুচ্ছ কবিতাঃ

দ্বিধার প্রহর
—————————————————–
কাহিনিগুলো দীর্ঘ হবে না জেনেও বলতে শুরু করি। এর আগে
পশলা বৃষ্টি ধুয়ে নিয়ে গ্যাছে পদছাপ। তাই যারা অতিক্রম করে
গিয়েছিল কালের গলুই, তাদের কোনো বাহুচিহ্ন ধরে রাখা যায়নি।
এবং শুরুর অন্তিমে যারা লুকিয়ে রেখেছিল কয়েকটি লালগোলাপ,
তাদের নামের তালিকা থেকেও ঝরেছে অক্ষর, ফলে নামগুলো নিয়ে
বেড়েছে সন্দেহ আর দ্বিধার প্রহর ।
অস্পষ্ট জলছাপ আর ধূসর পাতার অবয়ব পড়ে বর্ষাও লিখতে
শিখে আষাঢ়ের প্রথম পয়ার। সে কাহিনী মানুষ বোঝে না। ঢেউ
গোনতে জানে যে মাঝি , কেবল সে ই – পাথারসমগ্র বুকে নিয়ে
তাকায় আকাশের দিকে, আরেকটা তুফান শেষ হলে গাঙে ভাসাবে
নৌকা, অসমাপ্ত শ্লোকের রঙিন পাল।
চাঁদনগর
———————————————-
টেনে যাচ্ছি আর ক্রমশ’ই দীর্ঘ হচ্ছে সুতোসন্ধ্যা
পিয়ানোটাতে বসেছে যে পতঙ্গ, সে ও বার বার
গেয়ে যাচ্ছে বেদনার গান
সুরঘোরে আমিও ডুবে যাচ্ছি মদের মধ্যমায়।
বারিবৈষম্য জেনে এই দিগন্তে বৃষ্টিপাত থেমে
যাবার পর, আকাশও থামিয়ে দিয়েছে ছায়ার
পরিমাণ। তাই যে সব প্রেমিক-প্রেমিকারা
ভেজার আগুন নিয়ে খেলতে চেয়েছিল,
তারাও সংক্ষিপ্ত করেছে তাদের ভ্রমণ পরিকল্পনা।
আঙুলের অন্তরায় চাঁদনগরের রূপসীরাতগুলো
কখন নেমে আসবে-
সেই প্রতীক্ষায় আমি যখন পার করছি প্রহর,
তখনই হাতঘড়িটার দিকে তাকিয়ে দেখি
কাঁটা’টা বন্ধ হয়ে গেছে অনেক আগেই
ছেঁড়াসুতোর উন্মীলন তাকিয়ে আছে তোমার
দুটি চোখকে আবারও চিনবে বলে…………..
 

এইম ইন লাইফ
——————————————-
হাজিরা না দিলে নাম মুছে যায়। দস্তখতের দুয়ারে
বেড়িবাঁধ হয়ে পড়ে থাকে ফাইলের দাগ। লাল
কালি আর রক্তের পার্থক্য নির্ণয়ে  শিশুরা খেলে
জলডুবি খেলা।
পাখিরা পঙ্গুত্ব বরণ করে ডাল থেকে ছিটকে
মাটিতে পড়ে। কিছু কিছু শিকারী,  পঙ্গু পাখি
শিকারেও কসুর করে না। কুড়িয়ে পাওয়া গুলির
খোসা থেকে নতুন বুলেট তৈরি করে নব্য
অস্ত্র ব্যবসায়ী।
হত্যাযজ্ঞ চলে, ঘাতক বদল হয়
শোষণ চলে,  শোষক বদল হয়
হামাগুড়ি চলে, হাঁটু বদল হয়
মৃত সাপের ফণায় অস্তগামী হতে থাকে
আমাদের এইম ইন লাইফ.।

কিংবদন্তীদের পাশে মাশরাফি

76943তার ব্যাটিংটা বাংলাদেশের ক্রিকেট দর্শকদের একটা প্রজন্ম হয়তো ভুলেই গেছে। মাশরাফি নিজেও হয়তো ভুলে গেছেন যে একসময় লোয়ার মিডল অর্ডারে তার উপর নির্ভর করত দল।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দেখা গিয়েছিল তার ব্যাটিং ঝলক। হয়তো তিনি একজন প্রতিষ্ঠিত পেস বোলিং অলরাউন্ডার হতে পারতেন। সেই প্রতিষ্ঠা পুরোপুরি না পেয়েও অলরাউন্ডার হিসেবে এক অনন্য কীর্তি গড়লেন ম্যাশ

ক্রাইস্টচার্চে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে তিনি ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ১৫০০ রান, ২০০ উইকেট আর ৫০টি ক্যাচের মাইলফলকে পা রেখেছেন তিনি। তার আগে এই কীর্তি গড়েছেন মাত্র ১০ জন ক্রিকেটার। সেই সব ক্রিকেটারদের প্রায় সবাই কিংবদন্তির কাতারে আছেন। সেই দলে যোগ দিলেন আমাদের মাশরাফি।

এই তালিকায় স্থান পাওয়া বাকি ১০ ক্রিকেটার হলেন, কপিল দেব (ভারত), ওয়াসিম আকরাম (পাকিস্তান), সনাথ জয়সুরিয়া (শ্রীলঙ্কা), ক্রিস হ্যারিস (নিউজিল্যান্ড), ক্রিস কেয়ার্নস (নিউজিল্যান্ড), শেন ওয়ার্ন (অস্ট্রেলিয়া), চামিন্দা ভাস (শ্রীলঙ্কা), জ্যাক ক্যালিস (দক্ষিণ আফ্রিকা), শন পোলক (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও ড্যানিয়েল ভেট্টোরি (নিউজিল্যান্ড)।

যদিও মাশরাফির এই রেকর্ডের দিনে বাংলাদেশ দল বেশ বড় ব্যবধানে হেরে গেছে। দল জিতলে হয়তো বাংলাদেশ অধিনায়কের ভালো লাগত এই রেকর্ড গড়ে। বাংলাদেশের সব ক্রিকেটপ্রেমীদের মত তিনিও এখন চিন্তিত মুশফিকের ইনজুরি আর বুধবার অনুষ্ঠিতব্য দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ নিয়ে।

Developed by: