আরফিন রুমির বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ পেছালো

1410441599
২০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে প্রথম স্ত্রী লামিয়া ইসলাম অনন্যাকে নির্যাতনের মামলায় কণ্ঠশিল্পী আরফিন রুমির বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ পেছালো। বৃহস্পতিবার ঢাকার ৪ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটি সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারক আরিফুর রহমান ছুটিতে থাকায় ভারপ্রাপ্ত বিচারক এনামুল হক ভুইয়া আগামি ২১ সেপ্টেম্বর সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেছেন।
অনন্যা জানান, মামলাটির বিষয়ে আপোষ করে বৃহস্পতিবার আদালতে আপোষনামা দাখিলের জন্য আরফিন রুমিকে নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত। আরফিন রুমির সাথে তার এ বিষয়ে কোনো সমঝোতা হয়নি। শর্ত মোতাবেক তাদের একমাত্র সন্তান আরিয়ানের নামে ২০ লাখ টাকাও ফিক্সড ডিপোজিট করেননি। সমঝোতা না হলে তিনি এ মামলায় সাক্ষ্য দেবেন বলেও জানিয়েছেন। আদালতে আরফিন রুমি ও অনন্যা হাজির ছিলেন।
গত ১০ আগস্ট আরফিন রুমির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে আদালত। ২০১৩ সালের ১২ অক্টোবর রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় দায়ের করা মামলা গ্রেফতার হন রুমি।  পরদিন ৭ শর্ত পূরণ সাপেক্ষে হলফনামা দিয়ে জামিন পান তিনি। তবে জামিনের শর্ত লঙ্ঘন করায় পুনরায় জামিন বাতিল করে কারাগারে নেয়া হয় রুমিকে। পরবর্তীতে আপোষের শর্তে ফের জামিন পান তিনি। ২০০৮ সালের ৪ এপ্রিলে বিয়ে হয় রুমি ও অনন্যার। আরিয়ান নামে তাদের একটি তিন বছরের পুত্র সন্তান রয়েছে। মামলায় স্ত্রী অনন্যা অভিযোগ করেন,  ২০১২ সালে আমেরিকা প্রবাসী কামরুননেসাকে বিয়ে করেন রুমি। এর কিছুদিন পরই দ্বিতীয় স্ত্রী নিয়ে আমেরিকায় পাড়ি জমান তিনি। পাশাপাশি বন্ধ করে দেন ছেলে ও প্রথম স্ত্রীর ভরণ-পোষণ। শুধু তাই না, আমেরিকা থেকে ফিরে ২০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে নিয়মিত অনন্যার ওপর নির্যাতন চালাতেন তিনি।

Developed by: